মঙ্গলবার ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

ট্রাম্পকে নিষিদ্ধের দাবি: বিতর্ক হবে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে

প্রকাশঃ ০৬ জানুয়ারি, ২০১৬

ডোনাল্ড ট্রাম্পের যুক্তরাজ্যে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবিতে দেওয়া একটি গণপিটিশনের উপর বিতর্ক করবেন ব্রিটিশ আইনপ্রণেতারা।
বিবিসি বলছে, মঙ্গলবার এক বৈঠকে পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সের পিটিশন কমিটি এই ইস্যুটি নিয়ে একটি বিতর্ক করার সিদ্ধান্ত নেন।
১৮ জানুয়ারি ওয়েস্টমিনিস্টার হলে বিতর্কটি অনুষ্ঠিত হবে। ব্রিটিশ লেবার দলীয় এমপি পল ফ্লিন বিতর্কে নেতৃত্ব দিবেন। প্রায় পাঁচ লাখ ৬৮ হাজার ব্রিটিশ নাগরিকের সই করা ওই গণপিটিশনে যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে যেন যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে দেয়া না হয় সেই দাবি জানানো হয়েছে।গেল বছরের শেষ দিকে প্যারিসে ও যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সান বার্নার্ডিনো শহরের একটি প্রতিবন্ধী সেবাকেন্দ্রে দুই বন্দুকধারীর হামলায় ১৪ জন নিহত হন। দুটি হামলার সঙ্গেই মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সম্পৃক্ততা রয়েছে।এর পরিপ্রেক্ষিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প এক বক্তৃতায় মুসলমানদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি জানান। তার ওই বক্তব্যে বিশ্বজুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।ওই বক্তৃতার জেরে ব্রিটেনের নাগরিকরা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্যে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবিতে পিটিশনটি দাখিল করেন।ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনও ট্রাম্পের সমালোচনা করেছেন। কিন্তু ব্রিটেনে ট্রাম্পের বড় ধরনের ব্যবসায়িক স্বার্থ রয়েছে, তাই ক্যামেরন ট্রাম্পের উপর এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা উচিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন। ব্রিটেনের চলতি আইন অনুযায়ী, এক লাখ সই রয়েছে এমন গণপিটিশন নিয়ে পার্লামেন্টে আলোচনার বিষয়টি আইনপ্রণেতাদের অবশ্যই বিবেচনায় নিতে হবে।এর বিপরীতে অপর একটি গণপিটিশন নিয়েও ব্রিটিশ আইনপ্রণেতারা আলোচনা করবেন।প্রায় ৪০ হাজার ব্রিটিশ নাগরিকের সই করা ওই পিটিশনে ট্রাম্পের উপর যুক্তরাজ্যে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়টি অযৌক্তিক বলে দাবি করা হয়েছে।