শনিবার ১৫ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১লা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সেরাদের সঙ্গে বিশ্ব ফুটবলের অপেক্ষা

প্রকাশঃ ১১ জানুয়ারি, ২০১৬

সোনার বাংলা৭১.কম ডেস্ক:ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো রাজত্ব ধরে রাখবেন? নাকি হারানো মুকুট আবারো নিজের করে নেবেন লিওনেল মেসি? নাকি প্রথমবারের মতো ব্যালন ডি`অর উঠবে নেইমারের হাতে? উত্তেজনায় ঠাসা এ প্রশ্নের উত্তর জানতে অপেক্ষায় থাকতে হবে আরও কিছুক্ষণ।

সুইজারল্যান্ডের রাজধানী জুরিখে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মেসি, রোনালদো কিংবা নেইমারের হাতে তুলে দেওয়া হবে ২০১৫ সালের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার খ্যাত ফিফা ব্যালন ডি’অর। এই অনুষ্ঠান জুরিখ থেকে সরাসরি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস-৪।

সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাতে জানা যাবে এর আগে টানা চার বছর সিংহাসন ধরে রাখা মেসি পঞ্চমবারের মতো পুরস্কারটি নিজের করে নেবেন, নাকি মেসিকে টপকে গত দুই আসরের মতো টানা তৃতীয়বার (চতুর্থবার) রোনালদো ধরে রাখবেন পুরস্কার, নাকি ক্যারিয়ারে প্রথমবার পুরস্কারটি জিতে নেবেন নেইমার।

আর্জেন্টাইন অধিনায়ক মেসি ব্যালন ডি অর জিতলে তা হবে ইতিহাসের প্রথম ও একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে পঞ্চম ব্যালন ডি’অর। পর্তুগিজ অধিনায়ক রোনালদো জিতলে সেটি হবে মেসির সঙ্গে সমতায় থাকার সর্বশ্রেষ্ঠ উপায়। আর ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার জিতলে তা হবে সব হিসেব নিকেষ উলটপালট করে দেওয়ার মোক্ষম উপায়।

তবে তিনজনের মধ্যে গেল বছরের পারফরমেন্সে এগিয়ে মেসি। গত বছরের ট্রেবল জয়ী বার্সার মূল নায়ক ছিলেন আর্জেন্টাইন এই সুপারস্টার। লা লিগা, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, কোপা দেল রে র সঙ্গে বছরের শেষ দিকে ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ জিতেছেন তিনি। ক্লাব ও দেশের হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় মেসি ৬১ ম্যাচ খেলে ৫২টি গোলের পাশাপাশি সতীর্থদের দিয়ে গোল করিয়েছেন ২৬টি। জিতেছেন এক বছরে ৫টি মেজর শিরোপা।

বার্সেলোনার হয়ে মেসি যতটা আলো ছড়িয়েছেন, ততটা আলো ছড়াতে পারেননি রিয়াল মাদ্রিদের প্রাণভোমরা রোনালদো। ক্লাব ও দেশের হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় ৫৭ ম্যাচে ৫৭ গোল করেও সতীর্থদের দিয়ে গোল করিয়েছেন ১৭টি। তবে, কোনো শিরোপায় হাত বোলাতে পারেননি তিনি।

অন্য দুজনের তুলনায় নেইমারের জন্য এবারের ব্যালন ডি অর কিছুটা ভিন্ন। প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পাওয়া নেইমারও বার্সার হয়ে এক বছরে ৫টি শিরোপা জেতার পাশাপাশি খেলেছেন দুর্দান্ত। ক্লাব ও দেশের হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় নেইমার ৬২ ম্যাচে ১৩টি অ্যাসিস্টসহ গোল করেছেন ৪৫টি।

এ তিনজন ফুটবলার ছাড়াও, সেরা কোচের পুরস্কারের দৌড়ে আছেন জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখের কোচ পেপ গার্দিওলা, বার্সা কোচ লুইস এনরিক ও চিলির কোচ জর্জ সাম্পাওলি। এবারের বর্ষসেরা নারী ফুটবলারের প্রথামিক তালিকায় তিনজনের মধ্যে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের কার্লি লয়েড, জাপানের আয়া মিয়ামা ও জার্মানের সেলিয়া সাসিক।