মঙ্গলবার ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

প্রকাশঃ ৩১ জানুয়ারি, ২০১৬

ওমান প্রবাসী আল-আমীনের (৩২) স্ত্রী শিল্পি বেগমের (২৬) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জেলা সদর হাসপাতালে গৃহবধু শিল্পি মারা গেছে। গৃহবধুর বাবার বাড়ির লোকজনের অভিযোগ স্বামীর নির্দেশে শ্বশুড় ম্বাশুড়ি ননদ সহ তাদের স্বজনরা যৌতকের জন্য মারধর করে তাকে গুরুতর আহত করেছিল। আর স্বামীর বাড়ির লোকজন বলছে শিল্পি জ্বরে মারা গেছে। স্বামীর বাড়ি শাখাইতি আর স্ত্রীর বাড়ি চুন্টা ইউনিয়নের নতুন হাটি গ্রামে। মারধরের ঘটনায় আগেই থানায় একটি অভিযোগ দেয়ার কথা জানিয়েছে শিল্পির বাবা। গতকাল দুপুরে জেলা সদর হাসপাতালে লাশের ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। পুলিশ, অভিযোগ পত্র ও নিহত শিল্পির পারিবারিক সূত্র জানায়, দুই বছর আগে নতুন হাটি গ্রামের দিনমজুর ফারুক মিয়ার কন্যা শিল্পির বিয়ে হয়েছিল পানিশ্বর ইউনিয়নের শাখাইতি গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ওমান প্রবাসী ছেলে আল-আমীনের সাথে। বিয়ের কিছুদিন পরই যৌতুকের জন্য শিল্পির উপর শাররীক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে স্বামী। শিল্পির কোন সন্তান হয়নি। এ বিষয়টিও একসময় কাল হয়ে দাঁড়ায়। আল-আমীন দ্বিতীয় বিয়ে করার ফন্দি আটে। গত ৭-৮ মাস ধরে শ্বশুড় শ্বাশুড়ি ননদ সহ স্বামীর বাড়ির লোকজন যৌতুকের জন্য শিল্পিকে চাপ দেয়। এমনকি নিয়মিত প্রচন্ড মারধর করতে থাকে। সম্প্রতি শিল্পিকে নিয়মিত খাবারও দিচ্ছিল না শ্বশুড় শ্বাশুড়ি। এক সময় শিল্পি অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এসব ঘটনায় শিল্পির বাবা ফারুক মিয়া বাদী হয়ে গত ২৯ জানুয়ারী স্বামী আল-আমীন, শ্বাশুড়ি রাবেয়া বেগম, শ্বশুড় বাচ্চু মিয়া সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে সরাইল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। টাকার খরচ হবে ভেবে অসুস্থ্য গৃহবধুকে তারা কবিরাজি চিকিৎসা করিয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় গত ২৭ জানুয়ারী শিল্পিকে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি দেখে গত শুক্রবার সকালে জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত শুক্রবার রাত ৭টায় গৃহবধু শিল্পি মারা যায়। গতকাল শনিবার দুপুরে লাশের সুরুতহাল শেষে ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ওদিকে শিল্পির মৃত্যুর খবর পেয়ে স্বামীর বাড়ির লোকজন গা ঢাকা দিয়েছে। নিহত শিল্পির মা পিয়ারা খাতুন (৪৫), বড় ভাই কাউছার মিয়া (২৮) বলেন, যৌতুকের জন্য মারধর করে, অনাহার রেখে বিনা চিকিৎসায় শিল্পিকে তারা হত্যা করেছে। শিল্পির স্বজন সুহিলপুরের রিমা বেগম (২৯) বলেন, শিল্পি জ্বরে মারা গেছে। গতকাল এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ বিষয়ে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল। সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আলী আরশাদ বলেন, শিল্পি জেলা সদর হাসপাতালে মারা গেছে। ময়না তদন্তের বিষয়টি সদর থানার। আর এ বিষয়ে এখনো আমাকে কেউ কিছু জানায়নি।