শনিবার ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৯শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশিকে বিজিবির কাছে হস্তান্তর

প্রকাশঃ ০১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদকঃভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে তিন বছর আগে ভারতে পাচার হওয়া শিশুসহ পাঁচ বাংলাদেশি নারীকে হস্তান্তর করেছে ভারতের পেট্রাপোল ক্যাম্পের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা।
সোমবার বিকেল ৫টায় স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে তাদের বেনাপোল চেকপোস্ট আইসিপি ক্যাম্পের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়ার উদ্দেশ্যে তাদের বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির কর্মকর্তারা গ্রহণ করেন।
ফেরত আসা বাংলাদেশিরা হলেন, সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার সাবিয়া খাতুন (১৬), বাগেরহাটের মোড়লগঞ্জ উপজেলার পুতুল বেগম (১৮), তার শিশু কন্যা তানিয়া আক্তার (৪), মাসুদা বেগম (৪৫) ও হুসিয়া শেখ (৫০)।
বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির যশোর জেলা সমন্বয়কারী কর্মকর্তা অ্যাডভোকেট নাসিমা আক্তার সোনারবাংলা ৭১.কমকে বলেন, অভাবি পরিবারের সরলতার সুযোগ নিয়ে পাচারকারীরা তাদের ভালো কাজ দেয়ার নাম করে সীমান্তের অবৈধ পথে ভারতে নিয়ে যায়। পরে বিভিন্ন অসামাজিক কাজে লিপ্ত করার চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ তাদের উদ্ধার করে আদালতে পাঠায়। সেখান থেকে হাওড়ার ‘নিলুয়া হোম সেন্টার’ নামের একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। পরে দু’দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে সোমবার তাদের ফেরত পাঠায় ভারতীয় বিএসএফ।
বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার আব্দুল্লাহীল ওয়াফি সত্যতা স্বীকার করে জাগো নিউজকে জানান, ফেরত আসা বাংলাদেশিদের অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে মহিলা আইনজীবী সমিতির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।
ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে তিন বছর আগে ভারতে পাচার হওয়া শিশুসহ পাঁচ বাংলাদেশি নারীকে হস্তান্তর করেছে ভারতের পেট্রাপোল ক্যাম্পের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা।সোমবার বিকেল ৫টায় স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে তাদের বেনাপোল চেকপোস্ট আইসিপি ক্যাম্পের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি)কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়ার উদ্দেশ্যে তাদের বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির কর্মকর্তারা গ্রহণ করেন।
ফেরত আসা বাংলাদেশিরা হলেন, সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার সাবিয়া খাতুন (১৬), বাগেরহাটের মোড়লগঞ্জ উপজেলার পুতুল বেগম (১৮), তার শিশু কন্যা তানিয়া আক্তার (৪), মাসুদা বেগম (৪৫) ও হুসিয়া শেখ (৫০)।
বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির যশোর জেলা সমন্বয়কারী কর্মকর্তা অ্যাডভোকেট নাসিমা আক্তার সোনারবাংলা ৭১.কমকে বলেন, অভাবি পরিবারের সরলতার সুযোগ নিয়ে পাচারকারীরা তাদের ভালো কাজ দেয়ার নাম করে সীমান্তের অবৈধ পথে ভারতে নিয়ে যায়। পরে বিভিন্ন অসামাজিক কাজে লিপ্ত করার চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ তাদের উদ্ধার করে আদালতে পাঠায়। সেখান থেকে হাওড়ার ‘নিলুয়া হোম সেন্টার’ নামের একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। পরে দু’দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে সোমবার তাদের ফেরত পাঠায় ভারতীয় বিএসএফ।
বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার আব্দুল্লাহীল ওয়াফি সত্যতা স্বীকার করে জাগো নিউজকে জানান, ফেরত আসা বাংলাদেশিদের অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে মহিলা আইনজীবী সমিতির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।