সোমবার ১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৪ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

মায়ের নামে গড়া হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্যপরীক্ষা

প্রকাশঃ ০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

সাাথী আক্তার= গাজীপুরের কাশীমপুরে তেতুইবাড়িস্থ শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজে হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার নিয়মিত স্বাস্থ্যপরীক্ষা করিয়েছেন।
শুক্রবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রী বিশেষায়িত এ হাসপাতালে যান। সেখানে প্রধানমন্ত্রী নিজেই হাসপাতালের কাউন্টারে গিয়ে স্বাস্থ্য চেকআপের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেন ও ফি পরিশোধ করেন।
হাসপাতালে পৌঁছালে এর সিইও জয়তুন সোলায়মান ও ডিরেক্টর আরিফ মাহমুদ প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। এরপর রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হলে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্য চেকআপ করা হয়।
দেশের প্রখ্যাত মেডিসিন বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. এবিএম আব্দুল্লাহর তত্ত্বাবধানে প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্য চেকআপ শুরু হয়।
এরপর খ্যাতিমান নাক কান গলা বিশেষজ্ঞ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত প্রধানমন্ত্রীর নাক, কান, গলা সংক্রান্ত বিষয়গুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন।
চক্ষু পরীক্ষা করেন বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. দ্বীন মো. নুরুল হক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক স্বাস্থ্য ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী।
স্বাস্থ্য চেকআপে অংশ নেন ডা. ওয়াজিহা আক্তার জাহান, ডা. বনজবা ও ডা. শাহানা ফেরদৌস।
নিজেই তার স্বাস্থ্য চেকআপের জন্য এই হাসপাতালটিকে পছন্দ করেন। উপরে উল্লেখিত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরাসহ দেশের খ্যাতিমান চিকিৎসকরা এই হাসপাতালে নিয়মিত চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছেন।
প্রধানমন্ত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রত্যেক রোগীকে বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে আসছেন।সালের ১৮ নভেম্বর মালেশিয়ার খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান কেপিজের সাথে বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের যৌথ উদ্যোগে এ হাসপাতালটি যাত্রা শুরু করে।
প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মেডিসিন, সার্জারি, গাইনি, শিশু, চক্ষু, নাক-কান-গলা, নিউরোমেডিসিন ও হৃদরোগসহ সকল ধরনের রোগের উন্নত চিকিৎসাসেবা দিয়ে হাসপাতালটি ব্যাপক প্রশংসা অর্জন করেছে। এছাড়া এমআরআই, সিটি স্ক্যান, ক্যাথ ল্যাব, ডায়ালাইসিসসহ বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও আর্ন্তজাতিক মানের নাসিং সেবা প্রদান করে দেশের চিকিৎসাখাতে ইতোমধ্যেই বিশেষ স্থান দখল করে নিয়েছে।
ব্যক্তিগত কর্মকর্তারা ছাড়াও বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সদস্য সচিব শেখ হাফিজুর রহমানসহ অন্য সদস্যরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।