রবিবার ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২০শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

খুলনায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে সংঘর্ষ

প্রকাশঃ ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

জেলা প্রতিনিধিঃখুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলায় প্রার্থী মনোনয়নকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আহত হয়েছে উভয় গ্রুপের অন্তত ১৫ জন নেতাকর্মী। এর মধ্যে ৫ জনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।মঙ্গলবার দুপুরে বটিয়াঘাটা বাজারে অবস্থিত দলীয় কার্যালয়ে উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের প্রার্থী চূড়ান্তকরণের সময়ে এ সংঘর্ষ হয়।পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বটিয়াঘাটা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্তের নির্ধারিত দিন ছিল মঙ্গলবার। সকাল থেকে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদের সম্ভাব্য প্রার্থীরা মিছিল নিয়ে বটিয়াঘাটা বাজারে অবস্থিত দলীয় কার্যালয়ের সামনে জড়ো হতে থাকেন। বেলা ১২টার দিকে প্রথমে সদর ইউনিয়নের প্রার্থী চূড়ান্তের প্রক্রিয়া শুরু হয়। ওই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দুই নেতা প্রার্থী থাকায় ভোটের প্রস্তাব ওঠে। ভোটে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সমীর বিশ্বাস ৪২ এবং বর্তমান চেয়ারম্যান মনোরঞ্জন মণ্ডল ২০ ভোট পান। তখন মনোরঞ্জন মণ্ডল ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে কার্যালয়ের বাইরে বিক্ষোভ করতে থাকেন।
দ্বিতীয় ধাপে ভান্ডারকোট ইউনিয়নের প্রার্থী বাছাইয়ের প্রক্রিয়া শুরু হলে চেয়ারম্যান প্রার্
ইসমাইল হোসেন বাবুর সমর্থকরা ভোটের বিরোধীতা করে স্লোগান দিতে থাকে। পাল্টাপাল্টি স্লোগানকে কেন্দ্র করে হাতাহাতি ও পরে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া পাল্টা শুরু হয়। আধাঘণ্টা ধরে চলা ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ায় উভয় পক্ষের প্রায় ১৫ জন নেতাকর্মী আহত হন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।বটিয়াঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন-উর রশীদ জানান, আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের ভেতরে হাতাহাতি হয়েছে। পরে বাইরে দুই পক্ষ ধাওয়া-ধায়ী হয়। এতে এক জনের মাথা ফেটে গেছে এবং ৪ জন হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।