মঙ্গলবার ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

ব্যাংকে ডাকাতির চেষ্টা, ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

প্রকাশঃ ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

নিজস্বপ্রতিবেদকঃ : সাভারের ধামরাইয়ে সোনালী ব্যাংকের একটি শাখায় ডাকাতির চেষ্টাকালে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাসুদ (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ সময় তার দলের নারী ও শিশুসহ মোট ছয়জনকে আটক করা হয়েছে।
আটক করা ব্যক্তিরা হলেন শিলা (২০), রোমানা (২২), তার ছেলে সাকিব (৭), বাদশা (৪০), রিয়াজুল (৪৮) ও সবুজ (৬০)।
শুক্রবার ভোর রাতে ধামরাইয়ে সোনালী ব্যাংকের সামনে র‌্যাবের সঙ্গে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।
র‌্যাবের বরাত দিয়ে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রিজাউল হক সোনারবাংলা৭১.কমকে জানান, চারতলা বাড়ির দোতলায় সোনালী ব্যাংকের শাখাটি রয়েছে। এক মাস আগে বাড়িটির তৃতীয় তলা মাসুদসহ আটক ব্যক্তিরা ভাড়া নেন। তৃতীয় তলার নিচে দোতলায় ব্যাংকের ভল্টের ছাদ কেটে টাকা লুটের পরিকল্পনা ছিল তাদের। ব্যাংকের ভল্ট যেখানে বসানো, ঠিক তার ওপরের মেঝের টাইলস খুঁড়ে রাখা ছিল। বিশেষ কৌশলে মেঝের টাইলস খোলা হচ্ছিল। নিচ থেকে বোঝার কোনো উপায় ছিল না। মেঝের ওই অংশের প্রায় ৭০ ভাগ খুঁড়ে ফেলা হয়।
ওসি রিজাউল বলেন, গোপন খবরের ভিত্তিতে গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে র‍্যাব বাড়িটিতে অভিযান চালায়। অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে ওই বাসা থেকে র‌্যাবের দিকে গুলি ছোড়া হয়। র‌্যাবও পাল্টা গুলি করলে কিছুক্ষণ বন্দুকযুদ্ধ চলে। ওই সময়ই মাসুদ নিহত হয়। ওই বাড়ি থেকে মেঝে কাটার বিভিন্ন ধরনের যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়েছে। মাসুদের
লাশ ধামরাই থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে র‌্যাব। আটককৃতদের র‌্যাব হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
বাসার মালিক রিয়াজউদ্দিনের ছেলে রেজাউল করিম বলেন, মাসুদ তিন মাস আগে বাড়িটি ভাড়া নেন। এক মাস আগে সপরিবারে থাকবেন বলে তারা বাড়িতে ওঠেন। তাদের আচরণ অন্য সব ভাড়াটেদের মতোই ছিল। তারা আগে থেকে কিছু টের পাননি।
সোনালী ব্যাংকের ওই শাখার ব্যবস্থাপক কাজী সোলায়মান জানান, বাসার মালিক কাকে বাসা ভাড়া দিয়েছেন, তিনি জানেন না। ওপর তলার মেঝে খোঁড়া হচ্ছে কি না, তারা বুঝতে পারেননি। কোনো শব্দ পাননি।