শনিবার ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৯শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

নারীদের শাস্তি দিতে আইএসের নতুন অস্ত্র

প্রকাশঃ ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

ডেস্কঃ ইরাকের মসুল শহরে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বর্বর নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন নারীরা। কোনো নারী পর্দাবিহীন হয়ে বের হলে জঙ্গিরা বিশেষ ধরনের যন্ত্র ব্যবহার করে তাদের শাস্তি দিচ্ছেন।
নির্যাতনের শিকার এক নারী জানান, সম্প্রতি তিনি হাতের গ্লাভস ভুলেই বাড়িতে রেখে শহরে কাজের জন্য বের হয়েছিলেন। তার ফাঁকা হাত দেখে আইএস জঙ্গিদের মনে হয়েছিল, বড্ড বেশিই উন্মুক্ত পোশাক পরে ফেলেছেন। আর এ কারণেই তাকে কঠিন শাস্তির মুখোমুখি করে আইএস। তার হাতে লাগিয়ে দেওয়া হয় `ক্লিপার`। ধাতব দাঁতের মতো একটি যন্ত্র হাতের মধ্যে গেঁথে বসে যায়। আর শাস্তি শেষে সেটা যখন খুলে নেওয়া হয়, খুবলে চলে আসে মাংসও।
মসুলের অধিকাংশ নারীর হাতেই এ দাগ চোখে পড়ে। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাকের এ শহরের নিয়ন্ত্রণ এখন আইএস জঙ্গিদের হাতে।
মসুল থেকে কোনও ক্রমে পালিয়ে এসেছেন গৃহবধূ ফাতিমা (২২)। আইএসের বর্বর নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, গত এক বছরে আইএস আরও বেশি নৃশংস হয়ে উঠেছে। নারীদের উপর অত্যাচার বেড়েছে কয়েক গুণ।
is-female20160226055322ফাতিমা বলেন, ক্লিপার আমাদের কাছে দুঃস্বপ্নের মতো। ক্লিপার লাগানোর ব্যথা প্রসববেদনার চেয়েও বেশি। সৌদি আরব ও লিবিয়া থেকে যারা আইএসে যোগ দিয়েছে, নারীদের উপর নির্যাতনের প্রবণতা তাদেরই বেশি।