মঙ্গলবার ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

দুই শিশুর মৃত্যু : বাবা-মা ও খালাকে ঢাকায় নিয়ে আসছে র‌্যাব

প্রকাশঃ ০২ মার্চ, ২০১৬

রাজধানীর বনশ্রীতে দুই শিশুর (ভাই-বোন) রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাবা-মা ও খালাকে র‌্যাব হেফাজতে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে। এর আগে বুধবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে জামালপুর শহরের নতুন হাইস্কুল মোড় এলাকা থেকে তাদের আটক করে র‌্যাব-৩।

বিষক্রিয়ায় নয় শ্বাসরোধ করে ওই দুই শিশুকে হত্যা করা হয়েছে বলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ ফরেনসিক বিভাগ থেকে জানানোর পর র‌্যাব এই পদক্ষেপ নিয়েছে। র‌্যাবের ভাষ্য, দুই শিশুর রহস্যজনক মৃত্যুতে তাদের (বাবা-মা, খালা) কোনো যোগসাজশ রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখতেই জামালপুর থেকে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

র‌্যাব সদর দফতরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং এর পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান 2-baby-jamalpur20160302071250 জানান, ঢামেক ফরেনসিক বিভাগ জানিয়েছে, শিশুদের শরীরে মারধরের আলামত রয়েছে। সে কারণে পরিবারের সদস্যদের কোনো যোগসাজশ ছিল কি না তা খতিয়ে দেখতেই নিহতদের বাবা মোহাম্মদ আমান উল্লাহ ও মা মাহফুজা মালেক জেসমিন এবং খালাকে ঢাকায় আনা হচ্ছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার দুই শিশুর মরদেহ ঢামেক হাসপাতাল থেকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মরদেহ গ্রহণ করেন নিহতের চাচা। তবে পিতামাতা মরদেহ গ্রহণ না করে জামালপুর যাওয়ার কথা বলে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যাওয়ায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সন্দেহ বাড়তে থাকে।

এদিকে এখনও দুই শিশুর মৃত্যু রহস্য পরিষ্কার হয়নি। প্রকৃত রহস্য জানতে ঘটনার রাতেই পুলিশ শিশু দুটির পিতা-মাতা ছাড়াও আত্মীয়স্বজনসহ অনেককেই জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। শিশু দুজনকে যে হোটেলের খাবার খাওয়ানো হয়েছিল সেই হোটেলের ম্যানেজার ও প্রধান বাবুর্চিসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া শিশুটির গৃহশিক্ষিকা ও বাড়ির নিরাপত্তা প্রহরীসহ তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে র‌্যাব-৩।

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাতে রাজধানীর রামপুরা থানাধীন বনশ্রীর বি ব্লকের ৪ নম্বর সড়কের ৯ নম্বর সাততলা বাড়ির চতুর্থ তলা থেকে ইশরাত জাহান অরণী (১৪) ও তার সহোদর ভাই আলভী আমানকে (৬) অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রাত পৌনে ৮টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনার পর পিতা-মাতাসহ পরিবারের অনেকেই খাদ্যে বিষক্রিয়ায় তাদের দুই সন্তানের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করে আসছিলেন।