সোমবার ১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৪ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সাকিবকে সর্বনিম্ন শাস্তিটাই দেয়া হয়েছে

প্রকাশঃ ০৩ মার্চ, ২০১৬

সোনারবাংলা৭১.কম ঢাকা: পুরো স্টেডিয়ামে পিনপতন নীরবতা। পাকিস্তানকে হারাতে দরকার অল্প কিছু রান। উইকেটে সাকিব আল হাসান। পুরো দেশ তাকিয়ে আছে তার দিকে।

বোলিংয়ে মোহাম্মদ আমির। দ্রুত রান তোলার তাগিতে তাকে স্কুপ করতে গেলেন তিনি। কিন্তু পারলেন না। আমিরের বলে ভেঙে গেলো সাকিবের স্ট্যাম্প।

নিজেকে আর ওই মুহূর্তে ধরে রাখতে পারলেন না বাংলাদেশের সেরা ক্রিকেটার।

হতাশায় ব্যাট দিয়ে স্ট্যাম্পে করে বসলেন আঘাত। সঙ্গে সঙ্গে নিজের ভুলের জন্য অনুতাপও করলেন। তারপরও অবশ্য আইসিসির নিয়ম ভাঙায় তিরস্কৃত হতে হলো তাকে।

বৃহস্পতিবার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সাকিবকে তিরস্কার করার কথা জানিয়েছে আইসিসি। সেখানে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক ম্যাচে খেলোয়াড়দের আচরণবিধির এক নম্বর ধারা ভাঙার কারণেই সাকিবকে এই শাস্তি দেয়া হলো।

ঘটনার পর তাৎক্ষণিক ভাবে অনুতপ্ত হওয়ায় সাবিকে এই ধারা ভঙ্গের সর্বনিম্ন শাস্তিটাই দেয়া হয়েছে। সর্বোচ্চ শাস্তি হলো ম্যাচ ফির অর্ধেক কেটে নেয়া। সাকিবের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন শাস্তিটাই প্রয়োগ করেছে আইসিসি।

সাকিব যে ধারা ভেঙেছেন তাতে বলা আছে, কোনো খেলোয়াড় খেলার সময় ক্রিকেটীয় উপকরণ, মাঠের কোনো উপকরণ এসব নষ্ট করতে বা নষ্ট করার চেষ্টা করতে পারবেন না। ব্যাট দিয়ে স্ট্যাম্পে আঘাত করে এই নিয়মটাই ভেঙে ফেলেছেন সাকিব।

ঘটনাটি ঘটে বাংলাদেশের ইনিংসের ১৮তম ওভারে। এ সময় মাঠে ছিলেন আম্পায়ার অনিল চৌধুরী ও রুচিরা পাল্লিয়াগুরুগে। এ ছাড়া তৃতীয় ও চতুর্থ আম্পায়ারও ম্যাচ রেফারির কাছে বিষয়টি তোলেন। পরে সাকিবকে শাস্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

শাস্তি পেলেও দল জেতায় নিশ্চয় কষ্টটা একটু কমই পাচ্ছেন তিনি। ম্যাচে পাকিস্তানকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে ২০১২ সালের পর আবার এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। ছয় মার্চের ফাইনালে বাংলাদেশ খেলবে ভারতের সঙ্গে।
– See more at: http://www.sheershanewsbd.com/2016/03/03/118921#sthash.PyGAvTLM.dpuf