শনিবার ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

৩ মাস পর অপহৃত ছাত্রী উদ্ধার

প্রকাশঃ ০৩ মার্চ, ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টাস Kidnaper-Arrested20160303123534অপহরণের ৩ মাস পর শেরপুরের ঝিনাইগাতী এলাকা থেকে নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় অপহারণকারী আবুল হাসেম ওরফে কালা নূরানীকে (২৮) আটক করা হয়।

অপহরণকারী আবুল হাসেম ওরফে কালা নূরানী শ্রীবরদী উপজেলার চর হাবর গ্রামের আব্দুল গফুর মন্ডলের ছেলে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ১৫ নভেম্বর শেরপুর সদর উপজেলার হেরুয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ওই ছাত্রী হেরুয়া গ্রামের নিজবাড়ি থেকে স্কুলে যাওয়ার পর থেকে আর বাড়ি ফেরেনি। এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে আবুল হাসেম ওরফে কালা নূরানীর বিরূদ্ধে অপহরণের অভিযোগে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে অপহরণের অভিযোগে আটক আবুল হাসেম ওরফে কালা নূরানীর বলেন, ওই স্কুলছাত্রীর সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। প্রেমের কারণে তারা পালিয়ে বিয়ে করায় তার বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা দেওয়া হয়েছে।

শেরপুর সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল করিম বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ভোর তিনটার দিকে সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জুবায়ের খালিদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঝিনাইগাতী উপজেলার ধানশাইল এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় ওই গ্রামের মো. সাদেক আলীর বাড়িতে লুকিয়ে রাখা ওই অপহৃত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। এসময় আবুল হাসেম ওরফে কালা নূরানীকেও আটক করা হয়। পরে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য আদালতের অনুমতিক্রমে উদ্ধারকৃত স্কুল ছাত্রীকে দুপুরে শেরপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হয়।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় শেরপুর সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। বিকেলে আটককৃত আবুল হাসেম ওরফে কালা নূরানীকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।