শুক্রবার ২৮শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

আগামী ২৬ ডিসেম্বর নির্বাচনে জামাই-শাশুড়ি ভোট যুদ্ধে প্রচার-প্রচারণা।

প্রকাশঃ ১৪ ডিসেম্বর, ২০২১

জেলা প্রতিনিধি:আগামী ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে যশোরের অভয়নগর উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রেমবাগ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জমে উঠেছে জামাই-শাশুড়ি ভোট যুদ্ধের প্রচার-প্রচারণা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আসন্ন প্রেমবাগ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন সুরোভী ইসলাম। এদিকে একই ইউনিয়ের সাবেক চেয়ারম্যান এবং সুরোভীর মেয়ে জামাই এস এম সিরাজুল ইসলাম মান্নু এবারো নির্বাচন করছেন। তার নির্বাচনী প্রতীক ঘোড়া। দুজনই বিএনপির রাজনীতি করেন বলে জানা গেছে। তাই তারা দুজনই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

প্রেমবাগ ইউনিয়ের নির্বাচনের সবচেয়ে আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে শাশুড়ি-জামাইয়ের ভোট লড়াই। একই পরিবার থেকে দুজনে নির্বাচন করার কারণ খুঁজছে অনেকে।

চেয়ারম্যান প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মান্নু জানান, আমি প্রেমবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান থাকা সময়ে ইউনিয়নে অনেক উন্নয়ন করেছি। জনগণের দাবিতে পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে ‘ঘোড়া’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছি। সুরোভী ইসলাম আমার চাচা শাশুড়ি হলেও নির্বাচনের মাঠে কোনো আত্মীয়ের সম্পর্ক থাকে না। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী।

প্রার্থী সুরোভী ইসলাম জানান, আমি স্থানীয় বিএনপি সমর্থীত মৌন মনোনীত প্রার্থী। বিএনপির নেতা-কর্মীরা আমার জন্য কাজ করছেন। আমার জামাই একই পদে নির্বাচন করলেও আমার জন্য কোনো সমস্যা হচ্ছে না। আমি জয়ী হলে নারী-পুরুষের সমতায়ন ও নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা করব।

তিনি আরো বলেন, আমি প্রথম নারী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে জয়ের শতভাগ আশাবাদী।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এস এম হাবিবুর রহমান জানান, উপজেলার আটটি ইউনিয়নে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা অব্যাহত রয়েছে। কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। প্রেমবাগ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে একজন নারীসহ পাঁচজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।