শুক্রবার ২৮শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

শাশুড়িকে নিয়ে পালালেন জামাতা,স্বামীর শাস্তি চেয়ে অভিযোগ দায়ের

প্রকাশঃ ২২ ডিসেম্বর, ২০২১

অপরাধ ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার বছর চারেক আগে মেয়েকে বিয়ে দিয়েছিলেন বেকার এক যুবকের সঙ্গে। কাজকর্ম না থাকায় নিজের বাড়িতে মেয়ের জামাতাকে থাকতে দেন শ্বশুর। একপর্যায়ে শাশুড়ির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন ঘরজামাই কৃষ্ণগোপাল নামের ওই যুবক। এরপর সুযোগ বুঝে সবার অগোচরে শাশুড়িকে নিয়ে পালিয়ে যান কৃষ্ণগোপাল।

ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার লিলুয়া থানার জগদীশপুর গ্রামে। মা ও স্বামীর শাস্তি চেয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন মেয়ে।

প্রিয়াঙ্কা দাস নামে ওই তরুণী জানিয়েছেন, গত শনিবার তার স্বামী কৃষ্ণগোপাল দাসের সঙ্গে বাড়ি ছেড়েছেন মা শেফালি দাস। ফোন করে বাড়িতে সেটা জানিয়েছেন তিনি।

এরপর লিলুয়া থানায় মা ও স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন প্রিয়াঙ্কা।

তিনি জানান, ২০১৭ সালে বীরভূমের সাঁইথিয়ার যুবক কৃষ্ণগোপাল দাসের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। কিন্তু তেমন কোনো কাজকর্ম করতেন না যুবক। এরপর তাকে জগদীশপুরে ডেকে আনেন বাবা। সেই থেকে ঘরজামাই থাকতেন ওই যুবক। এরই মধ্যে শাশুড়ির সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি। এই নিয়ে গত সপ্তাহে বাড়িতে তুমুল ঝগড়া হয়। থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন প্রিয়াঙ্কা।

এরপর কৃষ্ণগোপালকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জামিন পেয়ে সাঁইথিয়া ফিরে যান তিনি। এরপর শনিবার শাশুড়িকে সঙ্গে নিয়ে পালান কৃষ্ণগোপাল। তারপর ফোন করে তা বাড়িতে জানান শেফালিদেবী। তবে তারা কোথায় রয়েছেন তা এখনো জানা যায়নি।